রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ১২:১৯ অপরাহ্ন

প্রযুক্তি ব্যবহারে সচেতনতায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধুসভার প্রচারণা 

ফয়সাল আহমেদ, জবি প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৩ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৯৩ জন দেখেছেন

ফয়সাল আহমেদ , জবি প্রতিবেদক

স্কুল শিক্ষার্থীদের মুঠোফোন ব্যবহারে সচেতনতায় ক্লাস ক্যাম্পেইন কর্মসূচি করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধুসভা। আজ বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয় পোগোজ ল্যাবরেটরি স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের মধ্যে এই সচেতনতা মূলক প্রচারণা চালানো হয়।

প্রথম আলোর ২৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ‘একটি করে ভালো কাজের’ অংশ হিসেবে আগামীকাল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধুসভা পোগোজ ল্যাবরেটরি স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের “মুঠোফোন ব্যবহারে সচেতনতা” শীর্ষক এই কর্মসূচি আয়োজন করে বন্ধুরা। কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে বন্ধুরা প্রতিটি ক্লাসরুমে শিক্ষার্থীদের মাঝে সচেতনতা মূলক বক্তব্য ও লিফলেট বিতরণ করেন।

কর্মসূচিতে অংশ নেয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধক্ষ্য অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ, কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ উজ্জ্বল কুমার আচার্য্য, হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক কাজী মোঃ নাসির উদ্দীন, পোগোজ ল্যাবরেটরি স্কুল এন্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মনির হোসেন, একাদশ- দ্বাদশ শ্রেণির তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি গ্রন্থের লেখক ফকর উদ্দিন মানিক, বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধুসভার উপদেষ্টা আশিকুজ্জামান প্রমুখ।

কোষাধ্যক্ষ কামালউদ্দীন আহমদ বলেন, মুঠোফোন আমাদের দৈনন্দিন জীবনে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। তবে ব্যবহার ইতিবাচক প্রত্যাশিত। শিক্ষা জীবনের শুরু থেকেই মুঠোফোন ব্যবহারে সচেতন হতে হবে।

উজ্জ্বল কুমার আচার্য্য বলেন, স্কুলের শিক্ষার্থীদের মুঠোফোন ব্যবহারের ভালো এবং খারাপ এ দুটা দিক সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। তারা অনেকে গেম খেলতে গিয়ে নানান ধরনের আসক্তি মূলক ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারে। অভিভাবকদের খেলায় রাখতে হবে মুঠোফোনে তারা কি ধরনের গেম খেলে এবং কত সময় ব্যয় করে। তবে যুগের সাথে তাল মিলিয়ে প্রযক্তির সঠিক ব্যবহার করতে হবে।

কাজী নাসির উদ্দীন বলেন, শৈশবের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময় হচ্ছে স্কুলের সময়। এ সময়ে সবাই চায় একটু নিজেকে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করতে। এজন্য অনেক সময় শিক্ষার্থীরা অভিভাবককে মিথ্যা বলে মুঠোফোনে গেম খেলে ঘন্টার পর ঘন্টা উপচয় করে। আমাদের এ বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।

লেখক ফকর উদ্দিন বলেন, মুঠোফোনের অত্যধিক ব্যবহারের ফলে স্মরণশক্তি লোপ, ঘুমের ব্যাঘাত, মাথাব্যথা, অবসাদ, স্নায়ুুবৈকল্যসহ নানা সমস্যা হতে পারে। এ জন্য মুঠোফোন ব্যবহারে সচেতনতার বিকল্প নেই। মুঠোফোনের দাস না হয়ে তার ইতিবাচক ব্যবহার প্রত্যাশিত। সচেতনতা ব্যবহারে মুঠোফোন হোক আশীর্বাদ, অভিশাপ নয়।

কর্মসূচিতে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধুসভার সভাপতি আবরার জাহিন, সাধারণ সম্পাদক মেহেরুন্নেসা নূরী প্রচার সম্পাদক সম্পাদক মোঃ সবুজ, দপ্তর সম্পাদক মিলন হোসেন ও অন্যান্য বন্ধুরা উপস্থিত ছিলেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেমে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির অরো খবর
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com